আপনি এবং আপনার পরিবার অলক্ষ্যেই ঈমানহারা হচ্ছেন না তো ?

আপনি খুবই দ্বীনি মেজাজের লোক, সাথে আপনার পরিবারের লোকও। চিন্তা করলেন ডিজিটাল যুগে এসে দ্বীনি কাজগুলোও কিছু ডিজিটাল করা দরকার। তাই প্রিয় মোবাইলকে বানালেন মাধ্যম, নামালেন কিছু দ্বীনি এপস। স্ট্যাডি করতে শুরু করলেন।

ভাল কথা। আপনি কি জানেন, আপনার ঈমান-আমল ধ্বংস করতে কত শত চোর ঘাপটি মেরে বসে আছে ? আপনি কল্পনাও করতে পারবেন না বাতিলপন্থিরা আমরা ঈমান-আমল ধ্বংস করার জন্য কি পরিমান প্রস্তুতি নিয়ে বসে আসে। আপনি এপস নামাচ্ছে, বই পড়ছেন, ভিডিও দেখছেন, ভাল কথা।

কিন্তু একবারও কিন্তু আপনি যে আলেমকে গ্রহনযোগ্য মনে করেন তাকে একবারও এই জিনিষগুলো সোর্স সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করে নিয়েছেন ? আপনি বলবেন,”আরে ভাই আমার বিবেক আছে না?”

কথাটা এমন, আপনার অসুখ হল, আপনি ফার্মেসি গিয়ে কিছু সুন্দর ওষুধের প্যাকেট পছন্দ করলেন আর এখান থেকে দামি দামি ওষুধগুলো নিয়ে রোগের জন্য খেতে শুরু করলেন।

বাজারের ছোট পুটি মাছ কিনতেও তো অনেক যাচাই-বাছাই করেন, নিজের ঈমান-আমলের বিষয় সম্পর্কিত বিষয় নিয়ে কিভাবে এত উদাসীন হতে পারেন! আপনার দ্বীন কি আপনার কাছে এতই মূল্যহীন, বাজারের সামান্য পুটিমাছের সমানও মূল্য কি আপনার দ্বীন আপনার থেকে পাওয়ার আশা করে না ?

তবে কিভাবে নাযাতের আশা করি আমরা ? যে ঈমান আপনার কাছে এত মূল্যহীন সে মূল্যহীন ঈমান কিভাবে আপনাকে পুলছিরাত পার করে এত মূল্যবান জান্নাতে নিয়ে যাবে ?

পোষ্টের উল্লেখিত ছবিগুলো কাদিয়ানীদের এপসের স্ক্রিনশট। আপনি ধারনাও করতে পারবেন না কিভাবে এগুলোর মাধমে তারা সাধারন সরলমনা মানুষদের ঈমানহারা করছে …

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.