আমাদের এলাকার সাধারণ লোকজন
মনে করে , একটা গরু বা একটা…

প্রশ্ন
আমাদের এলাকার সাধারণ লোকজন
মনে করে , একটা গরু বা একটা মহিষে
কুরবানী আকীকা ইত্যাদি সাত ভাগই
করা লাগে। সাত ভাগের কম হলে
কুরবানী সহীহ হয় না। তাই তারা কখনো
পশুতে শরীক কম হয়ে গেলে বাকি
অংশগুলো তাদের মৃত আত্মীয়-স্বজনের
নামে দিয়ে সাত ভাগ পূর্ণ করে থাকে।
এখন আমার জানার বিষয় হল , তাদের
উক্ত ধারণা কি সঠিক ? একটি পশুতে কি
সাত ভাগই পূর্ণ করা লাগে এবং মৃত
ব্যক্তির জন্য ইসালে সাওয়াবের
নিয়তে কুরবানী করা যাবে কি ? করা
জায়েয হলে এ ভাগের গোশত কি সদকা
করে দিতে হবে?
উত্তর
প্রশ্নোক্ত ধারণাটি ঠিক নয়। গরু, মহিষ এ ধরনের পশু সাত ভাগে এবং তার কম যে কোনো অংশে কুরবানী বা আকীকা ইত্যাদি করা জায়েয। তবে কারো অংশ এক সপ্তমাংশের কম না হতে হবে। এক সপ্তমাংশের কম হলে কারো কুরবানী সহীহ হবে না। আর এ ধরনের পশুতে মৃত ব্যক্তির জন্যও ঈসালে সাওয়াবের উদ্দেশ্যে অংশ নেওয়া যাবে এবং এই অংশ সদকা করা জরুরি নয়। বরং এর হুকুম নিজের সাধারণ কুরবানীর মতই। তা থেকে নিজেরাও খেতে পারবে এবং সদকাও করতে পারবে। বাদায়েউস সানায়ে ৪/২০৭; আলমুহীতুল বুরহানী ৮/৩৭৪,৮৭৪; রদ্দুল মুহতার ৬/২৬৩; আদ্দুররুল মুখতার ৬/৫৩১, ৩১৬, ৩৩৫৷ উত্তর প্রদানে মুফতী মেরাজ তাহসীন
01756473393

প্রসঙ্গঃ মুরগী জবাই করার সময় বিসমিল্লাহ বলা ও উত্তর দক্ষিনে দাড়ানো৷

উত্তর দিয়েছেন : মুফতি মেরাজ তাহসিন

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.