আমাদের দেশে মৃত ব্যক্তিকে দাফন করার পরপরই তার জন্য দুআ…

প্রশ্ন

আমাদের দেশে মৃত ব্যক্তিকে দাফন করার পরপরই তার জন্য দুআ করা হয়। কেউ কেউ তা বৈধ মনে করেন আবার কেউ অবৈধ তথা বেদআত মনে করেন। কোন মতটি সঠিক তা জানতে চাই। এর সপক্ষে কোনো হাদীস থাকলে তাও জানতে ইচ্ছুক?

উত্তর

মৃত ব্যক্তির দাফন সম্পন্ন করার পর কিবলামুখী হয়ে তার জন্য দুআ করা মুস্তাহাব। এটি একাধিক হাদীস দ্বারা প্রমাণিত। এক হাদীসে আছে, হযরত আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ রা. বলেন, ‘(তাবুক যুদ্ধে) আমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে দেখেছি, তিনি আবদুল্লাহ যুলবিজাদাইন রা.কে কবরে শায়িত করলেন এবং দাফনের পর কিবলামুখী হয়ে হাত তুলে তাঁর জন্য দুআ করলেন। (দুআতে) তিনি বললেন, হে আল্লাহ! আমি তাঁর প্রতি সন্তুষ্ট, তুমিও তাঁর প্রতি সন্তুষ্ট হয়ে যাও।’

(হিলইয়াতুল আওলিয়া ১/১৬৯; আলবিদায়া ওয়াননিহায়া ৪/৬৭৩; আসসিরাতুন নাবাবিয়্যাহ, ইবনে হিশাম ২/৫২৭; ফাতহুল বারী ১১/১৪৮)

অন্য হাদীসে আছে, হযরত উসমান ইবনে আফফান রা. বলেন, ‘রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম মৃত ব্যক্তিকে দাফন করার পর কিছুক্ষণ অবস্থান করতেন এবং বলতেন, ‘তোমরা তোমাদের ভাইয়ের জন্য আল্লাহর নিকট মাগফিরাত কামনা কর এবং সে যেন কবরের সওয়ালের জওয়াব সঠিকভাবে দিতে পারে এজন্য দুআ কর। কেননা এখনি তাকে সওয়াল করা হবে।’ (সুনানে আবু দাদউ, হাদীস : ৩২২১)

এসব হাদীসের আলোকে ফকীহগণ দাফনের পর দুআ করাকে মুস্তাহাব বলেছেন। সুতরাং একে অবৈধ বা বিদআত বলা ঠিক নয়।

বযলুল মাজহূদ ১৪/১৯০; ইলাউস সুনান ৮/৩৪৩; ফাতাওয়া হিন্দিয়া ১/১৬৬; রদ্দুল মুহতার ২/২৩৭

উত্তর দিয়েছেন : মাসিক আল-কাওসার

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.