Register Now

Login

Lost Password

Lost your password? Please enter your email address. You will receive a link and will create a new password via email.

আমাদের মসজিদ সংলগ্ন পূর্ব দিকে একটি মাঠ ও পশ্চিম দিকে…

আমাদের মসজিদ সংলগ্ন পূর্ব দিকে একটি মাঠ ও পশ্চিম দিকে…

প্রশ্ন

আমাদের মসজিদ সংলগ্ন পূর্ব দিকে একটি মাঠ ও পশ্চিম দিকে একটি মাঠ আছে। পূর্ব দিকের মাঠটি মসজিদের জন্য ওয়াকফকৃত। আর পশ্চিম দিকেরটি আমাদের নিজস্ব। আমরা এতে একটি মাদরাসা প্রতিষ্ঠা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এজন্য আমরা নিয়ত করেছি, পশ্চিম দিকের মাঠটি মাদরাসার জন্য দান করব। এরপর মসজিদটি পশ্চিম পার্শ্বে মাদরাসার জায়গায় নিয়ে আসব এবং মাদরাসাটি পূর্ব দিকে মসজিদের জায়গায় নিয়ে যাব।

কেননা আমাদের পশ্চিম দিকের মাঠটির আয়তন একটি মাদরাসা প্রতিষ্ঠার জন্য যথেষ্ট নয়। আর মসজিদের খালি মাঠটি বেশ বড়সড়। যেখানে মাদরাসা প্রতিষ্ঠা করা যেতে পারে। জমির আয়তন প্রায় উনিশ শতাংশ এবং এটি নিকটবর্তী সময়ে মসজিদের কাজে আসার সম্ভাবনা নেই।

খ) যদি মসজিদের জায়গা রদবদল করা না যায় তাহলে পশ্চিমের মাঠটিতে মাদরাসা প্রতিষ্ঠা করে পূর্ব দিকে মসজিদের ওয়াকফকৃত জায়গায় মদারাসার জন্য কোনো ঘর বা ভবন নির্মাণ করা যাবে কি?

উত্তর

ক) প্রশ্নোক্ত মসজিদটি স্থানান্তর করা জায়েয হবে না। বরং মসজিদটিকে তার স্থানেই বহাল রাখতে হবে। কেননা কোনো স্থানে মসজিদ হয়ে গেলে তা মসজিদের জন্যই নির্ধারিত হয়ে যায়। তাই তা মসজিদ হিসেবে বহাল রাখা জরুরি।-আলমুহীতুল বুরহানী ৯/১২৯; ফাতহুল কাদীর ৫/৪৪০; রদ্দুল মুহতার ৪/৩৮৪; ফাতাওয়া সিরাজিয়া ৯৩

খ) মসজিদের জন্য ওয়াকফকৃত জায়গা মসজিদের কাজে ব্যবহার করাই শরীয়তের বিধান। সুতরাং প্রশ্নোক্ত মসজিদের খালি জায়গাতে স্থায়ীভাবে মাদরাসা ভবন নির্মাণ করা যাবে না। তবে উক্ত খালি জায়গাটি যেহেতু এখনি মসজিদের প্রয়োজন হচ্ছে না আর দ্বীনী তালীমও যেহেতু মসজিদের মাকসাদের অন্তর্ভুক্ত তাই মসজিদ কর্তৃপক্ষের অনুমতি সাপেক্ষে সাময়িকভাবে সেখানে মাদরাসার জন্য ঘর বানানো যাবে এবং তাতে মাদরাসার কার্যক্রম পরিচালনা করা যাবে। পরবর্তীতে যখন ঐ জায়গা মসজিদের প্রয়োজন হবে তখন তা মসজিদের জন্য ছেড়ে দিতে হবে।-আদ্দুররুল মুখতার ৪/৩৬০; ফাতাওয়া হিন্দিয়া ২/৪৬২, ৩৬২; নিযামুল ফাতাওয়া ৪/২/৪৮

উত্তর দিয়েছেন : মাসিক আল-কাওসার

Leave a reply