আমার কয়েকটি গাড়ি আছে। যেগুলো একটি ‘‘রেন্ট এ কার’’-এর মাধ্যমে…

প্রশ্ন

আমার কয়েকটি গাড়ি আছে। যেগুলো একটি ‘‘রেন্ট এ কার’’-এর মাধ্যমে ভাড়ায় চালিত হয়। প্রতি মাসে এগুলোর ভাড়া বাবৎ আমার যে আয় হয় পরিবারের ব্যয় নির্বাহের পরও তার উল্লেখযোগ্য পরিমাণ জমা থাকে। এভাবে অনেক টাকা জমা হলে তা দিয়ে আমি আরেকটি গাড়ি ক্রয় করি। এছাড়া কোনো গাড়ি পুরোনো হয়ে গেলে তা বিক্রি করে দেই। জানার বিষয় হল, আমার এই গাড়িগুলোর মূল্য ধরে যাকাত দিতে হবে কি না? আর নতুন গাড়ি ক্রয়ের জন্য যে টাকা জমা করি সেগুলোর ক্ষেত্রে কী বিধান?

উত্তর

রেন্ট এ কার বা ভাড়ায় চালিত গাড়ি যাকাতযোগ্য সম্পদের অন্তর্ভুক্ত নয়। তাই আপনার ঐ গাড়িগুলোর মূল্যের উপর যাকাত দিতে হবে না। তবে সেগুলো থেকে ভাড়া বাবৎ অর্জিত আয়ের যে অংশ প্রয়োজনীয় খরচ নির্বাহের পর অতিরিক্ত থাকবে তা যাকাতযোগ্য সম্পদের মধ্যে গণ্য হবে। সুতরাং যাকাত-বর্ষ পূর্ণ হওয়ার সময় আপনার মালিকানায় প্রয়োজন অতিরিক্ত নেসাব পরিমাণ বা তার বেশি যত টাকা থাকবে সবগুলোর যাকাত দিতে হবে। এমনকি গাড়ি ক্রয়ের নিয়তে জমাকৃত টাকারও বছরান্তে যাকাত দিতে হবে।

অবশ্য যাকাত-বর্ষ পূর্ণ হওয়ার পূর্বেই যদি গাড়ি কিনে ফেলেন তাহলে সে টাকার যাকাত দিতে হবে না।

Ñকিতাবুল আসল ২/৯৭; মুসান্নাফে আবদুর রাযযাক, হাদীস ৭০৬১; আলমুহীতুল বুরহানী ৩/১৬৭; ফাতাওয়া খানিয়া ১/২৫১; বাদায়েউস সানায়ে ২/৯১; আদ্দুররুল মুখতার ২/২৭৩

উত্তর দিয়েছেন : মাসিক আল-কাওসার

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Pin It on Pinterest