আমি ছোট থাকা অবস্থায় আমার আব্বা-আম্মার মাঝে কোনো কারণে তালাকের…

প্রশ্ন

আমি ছোট থাকা অবস্থায় আমার আব্বা-আম্মার মাঝে কোনো কারণে তালাকের মাধ্যমে বিচ্ছেদ হয়। আমার নানার আর্থিক অবস্থা ভালো ছিল কিন্তু তারপরও আম্মা ঢাকায় চলে যান এবং বাসা ভাড়া নিয়ে সেলাইয়ের কাজ করেন এবং তা থেকে নিজে উপার্জন করে খান। আর আমি আমার আব্বার কাছে থাকি। এটা প্রায় ১৫ বছর আগে। এখনো আমার আম্মা ঢাকায় থাকেন।

এখন জানার বিষয় হল, আম্মার ভরণ-পোষণের দায়িত্ব কি আমার উপর বর্তাবে? বা আমি কি খরচ দিতে বাধ্য?

যদি আমি খরচ না দেই তাহলে কি আমাকে আল্লাহর কাছে জবাবদিহি করতে হবে? দয়া করে বিস্তারিত জানালে উপকৃত হব।

উত্তর

পিতা-মাতার যদি খোরপোষের ব্যবস্থা না থাকে তাহলে সামর্থ্যবান সন্তানের জন্য পিতামাতার ভরণ-পোষণ ও প্রয়োজনীয় খরচ দেওয়া আবশ্যক। এটা সন্তানের উপর পিতা-মাতার হক। সামর্থ্যবান সন্তান এ হক আদায় না করলে গুনাহগার হবে।

আর পিতামাতা যদি সচ্ছল হন, অভাবী না হন তবে সন্তানের উপর তাদের ভরণ-পোষণের খরচ দেওয়া আবশ্যক নয়।

সুতরাং আপনার মায়ের বৈধ উপার্জন ও সম্পদ থেকে যদি তার প্রয়োজন পূরণ না হয় তবে আপনার সামর্থ্য থাকলে তার প্রয়োজন পরিমাণ খরচ দেওয়া আপনার কর্তব্য হবে।

আর যদি বৈধ উপার্জন থেকে তার প্রয়োজন পূরণ হয়ে যায় তবে তার খরচ দেওয়া আপনার উপর জরুরি নয়।

তবে সর্বাবস্থায় পিতা-মাতার খোঁজ-খবর রাখা, দেখা-সাক্ষাৎ করা, তাদেরকে সন্তুষ্ট রাখা, তাদের সম্ভাব্য খেদমত করা ও সাধ্য অনুযায়ী আরামের ব্যবস্থা করা সন্তানের কর্তব্য। এগুলো সন্তানের দুনিয়া ও আখেরাতের কামিয়াবির কারণও বটে।

-আল বাহরুর রায়েক ৪/২০৫; রদ্দুল মুহতার ৩/৬২৩; ফাতাওয়া হিন্দিয়া ১/৫৬৪

উত্তর দিয়েছেন : মাসিক আল-কাওসার

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.