এ বছর আমি হজ্ব করেছি। আমরা দুজন সাথী আরাফা থেকে…

প্রশ্ন

এ বছর আমি হজ্ব করেছি। আমরা দুজন সাথী আরাফা থেকে আসরের পরই রওনা হয়ে যাই। মাগরিবের আগেই মুযদালিফার সীমানার ভিতরে পৌঁছে গেছি। একজন হুজুর বললেন, আমাদের উপর দম ওয়াজিব হয়েছে। কিন্তু আমাদের কাছে টাকা না থাকার কারণে দম দেইনি। সফর মাসে আমার চাচা যিনি সৌদী আরব থাকেন তিনি যাবেন। তাকে দমের টাকা দিলে কি চলবে? তিনি কি হজ্বের মাস আসার আগেই দম যবাই করতে পারবেন? আর এর গোশত কি চাচারা খেতে পারবেন? দয়া করে জানিয়ে বাধিত করবেন।

উত্তর

আপনার চাচার মাধ্যমে দম আদায় করতে পারবেন। আর তা হজ্বের মাস আসার আগেও যবাই করা যাবে। কেননা দম ওয়াজিব হলে ঐ বছরের ১০ থেকে ১২ যিলহজ্বের মধ্যে আদায় করা উত্তম। তবে এরপর বছরের অন্য সময়ও জরিমানা দম আদায় করা জায়েয। আর দমের পশু যবাই করতে হবে হারামের এলাকাতেই। হারামের বাইরে যবাই করলে তা দ্বারা দম আদায় হবে না। দমের গোশত সদকা করা জরুরি। এটা ফকীর-মিসকীনের হক। চাচা যদি যাকাত গ্রহণের যোগ্য হন তবে তিনিও আপনার দমের গোশত খেতে পারবেন।

-আলমাবসূত, সারাখসী ৪/৭৫; আলবাহরুর রায়েক ৩/৭২; মানাসিক ৩৯৩-৫; গুনইয়াতুন নাসিক ৩৫৮

উত্তর দিয়েছেন : মাসিক আল-কাওসার

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.