ক্রয়-বিক্রয় ও ব্যবসা-বাণিজ্যের আলোচনা কি দুনিয়াবী কথাবার্তার অন্তর্ভুক্ত? মসজিদে বসে…

প্রশ্ন

ক্রয়-বিক্রয় ও ব্যবসা-বাণিজ্যের আলোচনা কি দুনিয়াবী কথাবার্তার অন্তর্ভুক্ত? মসজিদে বসে সরাসরি বা মোবাইল ফোনে ক্রয়-বিক্রয় এবং ব্যবসা-বাণিজ্যের আলোচনা করা বৈধ হবে কি না? কেউ কেউ বলেন, ব্যবসা-বাণিজ্য ইবাদতের অন-র্ভুক্ত। তাই ইতিকাফকারী ছাড়াও অন্যদের জন্য এর আলোচনা মসজিদে করতে কোনো অসুবিধা নেই। তাদের এ কথা কতুটুক সঠিক? আসলে কি ইতেকাফকারী ব্যতীত অন্য কেউ ক্রয়-বিক্রয় এবং ব্যবসা-বণিজ্যের আলোচনা মসজিদে করতে পারবে?

উত্তর

মসজিদে ক্রয়-বিক্রয় করাকে সরাসরি হাদীস শরীফে নিষেধ করা হয়েছে। হযরত আবু হুরায়রা রা. থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, যদি কাউকে মসজিদে বেচাকেনা করতে দেখ তাহলে তোমরা বলবে আল্লাহ যেন তোমার ব্যবসা লাভজনক না করেন।-জামে তিরমিযী ১/১৫৮

হালাল বেচাকেনা ও ব্যবসা-বাণিজ্য অবশ্যই ছওয়াবের কাজ। তবে সব ধরনের ছওয়াবের কাজের স্থান মসজিদ নয়; বরং এই হালাল ও ছওয়াবের কাজের স্থান হল বাজার। তবে শুধু ইতিকাফকারীর জন্য পণ্য মসজিদে উপস্থিত না করার শর্তে প্রয়োজনীয় লেনদেনের আলোচনার অনুমতি রয়েছে।

জামে তিরমিযী ১/১৫৮; ইবনে মাজাহ পৃ. ৫৪; আদ্দুররুল মুখতার ২/৪৪৮; আলবাহরুর রায়েক ২/৩০৩; বাদায়েউস সানায়ে ২/২৮৭; ফাতহুল কাদীর ২/৩১২

উত্তর দিয়েছেন : মাসিক আল-কাওসার

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.