(ক) যে ব্যক্তির উপার্জন হালাল-হারাম মিশ্রিত হয় আর সে কাউকে…

প্রশ্ন
(ক)
যে ব্যক্তির উপার্জন হালাল-হারাম
মিশ্রিত হয় আর সে কাউকে কোনো
কিছু হাদিয়া দেওয়ার সময় আমি এ
হাদিয়াটি আমার হালাল উপার্জন
হতে দিচ্ছি , এ কথা উল্লেখ না করে
তাহলে কি এ হাদিয়াটি তার হালাল
উপার্জন থেকে দিয়েছে এরূপ ধরে তা
গ্রহণ করা এবং ব্যবহার করা যাবে?
(খ)
উপরোক্ত শ্রেণীর ব্যক্তিদের হাদিয়া কেউ কবুল করার পর হাদিয়া গ্রহিতা তা কিছুদিন ব্যবহার করে অথবা ব্যবহার না করেই অন্যকে আবার যদি তা হাদিয়া দিয়ে দেয় তাহলে দ্বিতীয় ব্যক্তির জন্য এই হাদিয়া গ্রহণ করা জায়েয হবে কি?
উত্তর
(ক) হারাম মাল থেকে হাদিয়া দিলে তা গ্রহণ করা জায়েয হবে না। আর যার উপার্জন হালাল-হারাম মিশ্রিত সে কোনো কিছু হাদিয়া দিলে তা হালাল মাল থেকে দিয়েছে বলে জানা গেলে তা নেওয়া বৈধ হবে। হারাম মাল থেকে দিয়েছে জানা গেলে তা গ্রহণ করা বৈধ হবে না। আর যদি হাদিয়া কোন মাল থেকে দিয়েছে তা জানা না যায় তাহলে এক্ষেত্রে তার অধিকাংশ উপার্জন হালাল হলে উক্ত হাদিয়া গ্রহণ করা যাবে। আর যদি তার অধিকাংশ উপার্জন হালাল না হয়ে থাকে তাহলে তার হাদিয়া গ্রহণ করা যাবে
না।
মাবসূত, সারাখসী ১০/১৯৭ ; খুলাসাতুল ফাতাওয়া
৪/৩৪৮ ; ফাতাওয়া খানিয়া ৩/৪০০৷ (খ) উপরোক্ত ক্ষেত্রসমূহে যাদের থেকে হাদিয়া গ্রহণ করা হারাম তাদের থেকে কেউ হাদিয়া গ্রহণে করে ফেললে তা নিজে ব্যবহার করতে পারবে না ; বরং যাকাত গ্রহণের উপযুক্ত কোনো ব্যক্তিকে সদকা করে দিতে হবে। তা কোনো সামর্থ্যবানকে দেওয়া যাবে না। সামর্থ্যবান কাউকে দিলে সে যদি জানে যে , এটা হারাম তাহলে তার জন্য তা গ্রহণ করা জায়েয
হবে না।
সূরা তাওবা : ৬০ ; রদ্দুল মুহতার ৫/৯৮৷ উত্তর প্রদানে মুফতী মেরাজ তাহসীন
01756473393
উত্তর দিয়েছেন : মুফতি মেরাজ তাহসিন

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.