গত রমযানে আমি ওমরা করেছি। আমি যখন ওমরার তাওয়াফ করছিলাম..

প্রশ্ন

গত রমযানে আমি ওমরা করেছি। আমি যখন ওমরার তাওয়াফ করছিলাম তখন মাতাফের এক পাশে এক ব্যক্তি আতরের বড় শিশি হাতে নিয়ে দাঁড়িয়ে ছিলো। লোকদেরকে আতর মেখে দিচ্ছিল। আমার শরীরেও আতর মেখে দেয়। আমার হাতে ও কাঁধে অনেকটা আতর লাগে। কাপড়েও কিছু আতর লাগে। তাওয়াফ শেষ করে শরীর ও কাপড়ের যে অংশে আতর লেগেছিল সে অংশ ভালোবাভে ধুয়ে ফেলি।

মুফতী সাহেবের কাছে প্রশ্ন হল, এভাবে অনিচ্ছাকৃত অন্য আরেকজন আমার শরীরে আতর লাগিয়ে দেয়ার কারণে আমার উপর

কোনো জরিমানা ওয়াজিব হয়েছে কি না?

উত্তর

ইহরাম অবস্থায় নিষিদ্ধ বিষয়গুলো অনিচ্ছাকৃতভাবে ঘটলেও জরিমানা ওয়াজিব হয়। তাই সুগন্ধির পরিমাণ যদি বেশি হয় তবে দম ওয়াজিব হবে। আর কম হলে জরিমানাস্বরূপ সদকা দিতে হবে।

প্রকাশ থাকে যে, সদাকাতুল ফিতর সমমূল্যের টাকা সদকা করতে চাইলে নিজ দেশের ফকীর-মিসকিনকে দিতে পারেবন। আবার হারামের ফকীরদরেও দিতে পারবেন।

উল্লেখ্য, ঘটনাটি যেহেতু অনিচ্ছাকৃত ঘটেছে তাই ঐ ঘটনার জন্য আপনি গুনাহগার হবেন না।

-আলমাবসূত, সারাখসী ৪/১২২; ফাতাওয়া হিন্দিয়া ১/১৪০-১৪১; মানাসিক, মুল্লা আলী আলকারী পৃ. ৩১২

উত্তর দিয়েছেন : মাসিক আল-কাওসার

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Pin It on Pinterest