গত রমযানে একদিন আমাদের বাসার ঘড়িটি কারো অজান্তেই ১০ মিনিট

প্রশ্ন

গত রমযানে একদিন আমাদের বাসার ঘড়িটি কারো অজান্তেই ১০ মিনিট স্লো হয়ে যায়। আমরা এই ঘড়ি দেখেই সাহরি খাচ্ছিলাম। তখন পাশের বাসার একজন এসে বলল, ৮/৯ মিনিট আগেই সাহরির সময় শেষ হয়ে গেছে। সাথে সাথে আমরা খাওয়া বন্ধ করে দেই।

প্রশ্ন হল, আমাদের উক্ত রোযাটি কি সহীহ হয়েছে? না হয়ে থাকলে এখন আমাদের করণীয় কী? জানিয়ে বাধিত করবেন।

উত্তর

প্রশ্নোক্ত ক্ষেত্রে যারা ঐ সময় খাচ্ছিলেন তাদের রোযাটি সহীহ হয়নি। উক্ত রোযার কাযা করতে হবে। সায়ীদ ইবনে যুবায়ের রাহ. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন,

إذَا أَكَلَ بَعْدَ طُلُوعِ الْفَجْرِ مَضَى عَلَى صِيَامِهِ، وَقَضَى يَوْمًا مَكَانَهُ.

কোনো ব্যক্তি সুবহে সাদিকের পর পানাহার করলে সে রোযা অবস্থায়ই থাকবে (অর্থাৎ বাকি দিন পানাহার থেকে বিরত থাকবে) এবং এর স্থলে অন্য একদিন রোযা রাখবে।

-মুসান্নাফে ইবনে আবী শাইবা, হাদীস ৯১৩৪; কিতাবুল আছল ২/১৪৫; মাবসূত, সারাখসী ৩/৫৫; খুলাসাতুল ফাতাওয়া ১/২৫৬; ফাতাওয়া হিন্দিয়া ১/১৯৪

উত্তর দিয়েছেন : মাসিক আল-কাওসার

Pin It on Pinterest

Hatay masaj salonu Diyarbakır masaj salonu Adana masaj salonu Aydın masaj salonu Kocaeli masaj salonu Muğla masaj salonu Yalova masaj salonu Gaziantep masaj salonu Kütahya masaj salonu Elazığ masaj salonu Bursa masaj salonu Konya masaj salonu Samsun masaj salonu Mersin masaj salonu Manisa masaj salonu Afyon masaj salonu Kütahya masaj salonu Çanakkale masaj salonu Edirne masaj salonu Yozgat masaj salonu Çorum masaj salonu>