গোত্রীয় লোকজনসহ সুরাদ ইবন আবদুল্লাহ আল-আযদীর আগমন, জারাশ প্রতিনিধি দলের আগমন

“ঘিসমিল্লাহির রাহমানির রাহীম, আল্লাহ্র রাসুল ও নবী মুহাম্মদের পক্ষ হতে আল হারিছ
ইবন আবদ কুলাল ও নুআয়ম ইবন আবদ করলে এবং য়ু রাঈন, মাআফিব ও হামাদানের
নেতা আন নৃমান এর প্রতি তারপর আমি তোমাদের কাছে সে আল্পাহ্র হাম্দ বয়ান করছি,
যিনি ব্যতীত আর কোন ইলাহ্ নেই ৷ রোমানদের দেশ (তাবুক) থেকে আমাদের প্রত্যাবর্তনকালে
তোমাদের দুতের আগমন সংবাদ আমি পেয়েছি ৷ দুত মদীনায় আমার সাথে স্যক্ষাত করে
তোমাদের স০ বাদাদি এবং ওদিককার খবরাখবর অবগত করেছে ৷ তোমাদের ইসলাম গ্রহণ
মুশরিকদেব সাথে ণ্ত ড়ামাদের যুদ্ধ বিগ্রহের কথাও যে আমাদের জানিয়েছে ৷ আল্লাহ তোমাদেরকে

তীর হিদায়াত্ব তর :াথ দেখিয়েছেন ৷

এখন তোমরা যদি কল্যাণ ও শৃগ্রলার পথ অনুসরণ করে চলতে থাক এবং আল্লাহ্ ও তীর
রাসুলের আকৃাত্য পালনে সালাত প্রতিষ্ঠা কর, যাকাত আদায় কর ৷ গনীমতে আল্লাহ্র হক ও
নবী করীম (সা) এবং তীর মনোনীত লোকদের হিসৃসা এক :াংঞ্চমা শ মথারীতি আদায় কর
যমীনের যাকাতররপ আল্লাহ্ ঘু মিনদের যিম্মায় যা নির্ধারিত করেছেন তা আদায় করতে থাক
ঝর্ণার পানি ও বৃষ্টির পানিতে উৎপন্ন ফসলের দশমড়াং শ (উশর)

আর বালতি দিয়ে সেচের পানিতে উৎপন্ন ফসলের ৰিশভাগের এক ভাগ এবং পরে যাকাতের
নির্ধারিত অংশ চল্লিশটি উটে একটি ৰিনতুল লাবুন’ (ত তভীয় বছরে পদার্পণ করেছে এমন মাদী
উট) যাকাত দিতে ৩হবে ৷ অনুরুপ ত্রিশটি উটে একটি ইবন লাবুন (তৃতীয় বছর শুরু হয়েছে
এমন বয়সের নর উট) , প্রতি পাচ উটে একটি ছাগল এবং দশ উটে দুটি ছাগল; চল্লিশটি গরুতে
একটি :ার্ণ বয়স্ক গকগাভী (তৃতীয় বছর শুরু হয়েছে এমন) আর ত্রিশটি গরুতে একটি তাবী

জ্জাব্লুইাদার৷ ওয়ান নিহড়ায়াজােমোঃ ১৪৩

(এক বছর পুর্ণ হয়ে দ্বিতীয় বছরে পড়েছে) বড়ো-ৰাচ্যুধী; শুধু চল্লিশটি সাইমা’১ ছাগল হলে
একটি ছাগল ৷

উল্লিখিত পরিমাণ আল্লাহর পক্ষ থেকে ঘু-’মিনদের উপরে নির্ধারিত ফরয’ যাকাতের
পরিমাণ ৷ কেউ ভাল কাজ আরো বাড়িয়ে করলে তা তার জন্য উত্তম হবে ৷ আর যে অন্তত
উল্লিখিত পরিমাণ আদায় করবে এবং মুশরিকদের বিরুদ্ধে যুমিনদ্দো সাহায্য-সহায়তা করবে,
সে ঈমানদারৰ্দর অন্তর্ভুক্ত হবে এবং অন্যান্য ঈমানদারদের ন্যায় কর্ডা-অধিকার ও বিধি-
নিবেধ তার জন্য প্রযোজ্য হবে এবং তার জন্য আল্লাহ ও তার রাসুলের ষিম্মা সাব্যম্ভ হবে ৷
আর ইয়ড়াহুদী-খৃস্টানদের কেউ মুসলমান হলে সেও যু’মিনদের অন্তর্ভুক্ত হবে এবং তার জন্য
অন্যান্য ঈমানদারদের মত অধিকার দায়িতৃ বর্তাবে ৷ কিন্তু যারা তাদের ইয়াহুদী-বৃস্ট ধর্মে
অনড় হয়ে থাকবে, তাদের-ধর্ম থেকে তাদের বিচুত করা হবে না ৷

উপরন্তু তাদের প্রত্যেক ৰরষ্ক পুরুষ, নারী (স্বাধীন ও) দাস নির্বিশেষে এক দীনার
(স্বর্ণযুদ্রড়া) পুর্ণাঙ্গ ও নিখুত জিযিয়া দিতে হবে; কিংবা সমযুভৈল্যর ঘুআফিয়ী’ বস্ত্র বা সমপরিমাণ
অন্যান্য কাপড় ৷ যারা এ পরিমাণ জিযিয়া আল্লাহর রড়াসুলের হাতে সমর্পণ করবে, তাদের
জন্যও আল্লাহ ও তার রাসুনের যিম্মা সাব্যস্ত হবে, আর যারা এতে অস্বীকৃত হয়ে তারা আল্লাহ
ও তার রড়াসুলের দুশমন

তারপর আল্লাহর রাসুল নৰী মুহাম্মদ যুরআ বুয়ামান এ মর্মে চিঠি পাঠালেন যে,

“আমার দুতগণ তোমার কাছে পৌছলে তাদের সাথে সদ্ব্যবহাবের আমি নির্দেশ দিচ্ছি;
দুঃশণ হলেন মৃআয ইবন জ্যবাল, আবদুল্লাহ ইবন যায়দ, মালিক ইবন উৰাদা, উকৰা ইবন
ঝার, মালিক ইবন মুবৃরা (না)-ও তাদের সহযোগীবৃন্দ ৷ তোমাদের যাকাতসাদাকাগুলো

তোমাদের প্রতিপক্ষের জিযিয়া সমুদয় সংগ্রহ করে তা আমার দুতদের হাতে সমর্পণ
ৰ্াৰ দুত স্লের প্রধান হল যুআয ইবন জবােল ৷ সে যেন সন্তুষ্ট চিত্তে আমার কাছে ফিরে

১ গ্ইম ( হুন্) বছরের অধিকাংশ সময় ক্টাধ্ন মুক্ত খোলা মাঠে চার বেড়ানাে পশু উট, গরু, ছাপল
র্মীআি) ল্লনুবাদক

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Pin It on Pinterest