জনৈক কিষাণ এক মাড়াইকলের মালিককে বলল যে, তুমি আমার এই…

প্রশ্ন

জনৈক কিষাণ এক মাড়াইকলের মালিককে বলল যে, তুমি আমার এই ধানগুলো মাড়িয়ে দিবে। তোমাকে মাড়াইকৃত ধান থেকে এক মণ ধান দিব। জানার বিষয় হল, এভাবে কারবার সহীহ হবে কি না। আর যদি সহীহ না হয় তাহলে এ কারবার করার কোনো সহীহ পদ্ধতি আছে কি না? জানিয়ে বাধিত করবেন।

উত্তর

প্রশ্নোক্ত ক্ষেত্রে মাড়াইকৃত ধান থেকেই পারিশ্রমিক দেওয়ার চুক্তি করা সহীহ হয়নি। কারণ এভাবে মজুরি নির্ধারণের ব্যাপারে হাদীস শরীফে নিষেধাজ্ঞা এসেছে। হযরত আবু সায়ীদ খুদরী রা. থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম একটি হাদীসে গম পিষার বিনিময়ে পিষণকারীকে ঐ আটা থেকে এক কাফীয প্রদানের শর্ত করা থেকে বারণ করেছেন। (সুনানে বায়হাকী ৫/৩৩৯; শরহু মুশকিলুল আছার ২/১৮৬

অন্য এক বর্ণনায় এসেছে, বিশিষ্ট তাবেয়ী হযরত হাসান বসরী রাহ. কোনো তাতীকে কাপড় বুনার জন্য এ শর্তে সুতা দেওয়া অপছন্দ করতেন যে, সে এর দ্বারা কাপড় বুনে তৈরি কাপড়ের এক তৃতীয়াংশ বা এক চতুর্থাংশ নিবে (আর বাকিটা মালিক নিবে)। (মুসান্নাফ ইবনে আবী শাইবা ১১/২০০, হাদীস : ২১৯৭৫)

এক্ষেত্রে সহীহ তরীকায় কারবার করতে চাইলে মাড়াইকৃত ধান থেকেই দিতে হবে এমন শর্ত করা যাবে না; বরং নির্ধারিত মানের নির্দিষ্ট ধান দেওয়ার চুক্তি করবে। এরপর ধানের মালিক যে কোনো ধান দিতে পারবে। এমনকি শর্ত অনুযায়ী হলে মাড়াইকৃত ধান থেকেও তা দিতে পারবে।

-সুনানে দারাকুতনী ৩/৪৭, হাদীস : ১৯৫; রদ্দুল মুহতার ৬/৫৭; মাবসূত ১৬/৩৫; আলমুহীতুল বুরহানী ১১/৩৩৩; খুলাসাতুল ফাতাওয়া ৩/২৬, ১১৩; ফাতাওয়া তাতারখানিয়া ১৫/১১৪; বাদায়েউস সানায়ে ৪/৪৩

উত্তর দিয়েছেন : মাসিক আল-কাওসার

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Pin It on Pinterest