in

তাবলীগ জামাত, হযরত সাআদ সাহেব ও উলামায়েকেরাম

সরকার কৌশল অবলম্বন করেছে। কৌশলে যাকে তার মতোই বুঝ দিয়ে দিলো! এক্ষেত্রে তারা সফল।

তাবলীগের মতো বড় একটা অঙ্গন হাতছাড়া হয়ে যাবে!

আমরা ব্যর্থ! হতাশ! অসহায়!

কেনো?

আমাদের বিষয়ে প্রশাসনকে জানিয়ে ফেলি। যেনো তারা আমাদের আপন ও নিকটের কেউ।

আমাদের বিষয় আমরা সমাধাণ করাটাই যৌক্তিক ছিলো, এটাই সহজ হতো।

কতইনা সুন্দর হতো আমরা যদি একটেবিলে বসতাম!

কতইনা সুন্দর হতো বিমানবন্দরে প্রবেশ করে তাঁর সাথে আলাপআলোচনা করা!

যেখানে থাকতাম আমরাই। ভিন্নমতের, ভিন্নপথের এবং কৌশলচক্রের কেউ থাকতো না।

মারকাজকে যারা লিড দিচ্ছেন তাদের জন্যে উচিত ছিলো, প্রকৃত অর্থে তাদের সবচেয়ে কাছের এবং আপনজন আলেমসমাজের ব্যাপারটি গুরুত্ব দেয়া। শ্রদ্ধা জানানো। তাদের দরদ অনুভব করা। বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখানো কখনোই সমাধান নয়। এটা দাওয়াতের মেজাজ-ওসলুব কোনটিই নয়।

আর যারা লাখো আলেমের বক্তব্য ও অবস্হানের প্রতি বিষোদগার করছেন এবং একচেটিয়া জনাব ওয়াসিফ সাহবেদের পক্ষাবলম্বন করছেন তাদের জন্য করুণা আর কষ্ট লাগে। তারা কি নিজেদের সাথে গাদ্দারী করছে!

মহান আল্লাহ সকলকে সুমতি দান করুন। আমিন।

লেখক-মাহমুদ মুজিব:: শিক্ষক, জামেয়া দারুল মা’আরিফ আল ইসলামিয়া, চট্টগ্রাম।

কেন্দ্রীয় সেক্রেটারি, কওমি মাদরাসা ছাত্র পরিষদ বাংলাদেশ।

What do you think?

Written by Qawmi Admin

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

GIPHY App Key not set. Please check settings

বিশ্ব ইজতেমা সফলের আহবান,আল্লামা শাহ আহমদ শফী (হাফিজাহুল্লাহ)

ইজতেমার ইতিহাসে এই প্রথম কোনো আরব ইজতেমায় বয়ান রাখলেন