দাড়ি রাখা সুন্নত নাকি ওয়াজিব?

প্রশ্ন
হুজুর দাড়ি রাখা কি সুন্নত নাকি ওয়াজিব? একজন বলল গাড়ি রাখা নাকি সুন্নত ৷ এবং দাড়ি বুঝা যায় এ পরিমান রাখলেই নাকি চলবে ৷ আসলে কি তাই? বিস্তারিত জানালে উপকৃত হব ৷
উত্তর
হাদীস ও সুন্নাহর বিধান অনুযায়ী দাড়ি রাখা ওয়াজিব। যারা সুন্নত বলে তাদের কথা সঠিক নয় ৷ কেননা আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম দাড়ি রাখার আদেশ করেছেন। হযরত আবদুল্লাহ ইবনে ওমর রা. বলেন, ‘আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম মোঁচ কাটার ও দাড়ি লম্বা করার আদেশ করেছেন।’
ﺇﻧﻪ ﺃﻣﺮ ﺑﺈﺣﻔﺎﺀ ﺍﻟﺸﻮﺍﺭﺏ ﻭﺇﻋﻔﺎﺀ ﺍﻟﻠﺤﻴﺔ -সহীহ মুসলিম ১/১২৯৷
বিভিন্ন হাদীসে আদেশের শব্দগুলোও বর্ণিত হয়েছে। যেমন- আবদুল্লাহ ইবনে ওমর রা.-এর সূত্রে
ﺧﺎﻟﻔﻮﺍ ﺍﻟﻤﺸﺮﻛﻴﻦ، ﻭﻓﺮﻭﺍ ﺍﻟﻠﺤﻰ ﻭﺍﺣﻔﻮﺍ ﺍﻟﺸﻮﺍﺭﺏ
‘মুশরিকদের বিরোধিতা কর। দাড়ি বাড়াও ও মোচ কাট।’
-বুখারী ২/৮৭৫ ৷ ইবনে ওমর রা.-এর সূত্রে মুসলিম ১/১২৯;
ﺧﺎﻟﻔﻮﺍ ﺍﻟﻤﺸﺮﻛﻴﻦ، ﻭﺍﺣﻔﻮﺍ ﺍﻟﺸﻮﺍﺭﺏ ﻭﺃﻭﻓﻮﺍ ﺍﻟﻠﺤﻰ
‘মুশরিকদের বিরোধিতা কর এবং মোচ কাট ও দাড়ি পূর্ণ কর।’
ইবনে ওমর রা.-এর সূত্রে বুখারী ২/৮৭৫, ﺍﻧﻬﻜﻮﺍ ﺍﻟﺸﻮﺍﺭﺏ ﻭﺍﻋﻔﻮﺍ ﺍﻟﻠﺤﻰ মোচ উত্তমরূপে কাট এবং দাড়ি লম্বা কর। আবু হুরায়রা রা.-এর সূত্রে মুসলিম ১/১২৯,
ﺟﺰﻭﺍ ﺍﻟﺸﻮﺍﺭﺏ ﻭﺍﺭﺧﻮﺍ ﺍ ﻟﻠﺤﻰ، ﺧﺎﻟﻔﻮﺍ ﺍﻟﻤﺠﻮﺱ
মোচ কাট ও দাড়ি ঝুলিয়ে দাও, অগ্নিপূজারীদের বিরোধিতা কর।’
উপরের হাদীসগুলোতে চারটি শব্দ পাওয়া গেল : ﺍﺭﺧﻮﺍ ـ ﺍﻋﻔﻮﺍ ـ ﺃﻭﻓﻮﺍ ـ ﻭﻓﺮﻭﺍ
এই সবগুলো শব্দ থেকে বোঝা যায়, আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম লম্বা ও পূর্ণ দাড়ি রাখার
আদেশ করেছেন। সুতরাং এভাবেই দাড়ি রাখা ওয়াজিব। তবে যেহেতু হাদীস বর্ননাকারী ইবনে ওমর , আবু হুরাইরা রাঃ সহ অনেক সাহাবাগন থেকে দাড়ি এক মুষ্টি হওয়ার পর কাটা প্রামানিত আছে, তাই দাড়ি এক মুষ্টি হওয়ার পর এক মুষ্টির অতিরিক্তাংশ কাটা যাবে ৷ যেমন- বুখারী শরীফে বর্ণিত হয়েছে- ইবনে উমর (রাঃ) যখন হজ্ব অথবা উমরা করতেন, তখন তিনি দাড়ি মুঠ করে ধরে মুঠের অতিরিক্ত অংশটুকু কেটে ফেলতেন।
-সহীহ বুখারী, হাদীস: ৫৮৯২; রদ্দুল মুহতার ২/৪১৭ ৷
মুফতী মেরাজ তাহসীন মুফতীঃ জামিয়া দারুল উলুম দেবগ্রাম ব্রাহ্মণবাড়িয়া ৷

উত্তর দিয়েছেন : মুফতি মেরাজ তাহসিন

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Pin It on Pinterest

অ্যাপের মাধ্যমে কিতাব ডাউনলোড ও  ইন্টারনেট ছাড়া পড়তে ইনস্টল করুন কওমী পাঠাগার অ্যাপটি