পুরুষের সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ককারী নারীদের কঠোর ইঙ্গিত, সমালোচনায় সৌদি আলেম

একটি ভিডিও প্রকাশের পর ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছেন একজন সৌদি আলেম। সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমে তার ভিডিওটি ভাইরাল হয়। সেখানে তিনি ওইসব নারীদের প্রতি অত্যন্ত কঠোর ভাষায় আক্রমণ করেন, যারা পুরুষদের সঙ্গে অবাধে মেলামেশা করে।

এসব নারীকে তিনি হত্যার ব্যাপারেও মত প্রকাশ করেন। তিনি বিশিষ্ট সাহাবী হজরত উমর ইবনে খাত্তাব রা. এর ঘটনা উল্লেখ করেন ভিডিওতে। বলেন, একবার হজরত উমর রা. যখন তার স্ত্রীকে ঘরের দরজার সামনে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখলেন, বর্শা বের করলেন তাকে হত্যা করার জন্য। অথচ একটি সাপ তার ঘরে প্রবেশ করায় তিনি বাধ্য হয়ে দরজায় এসে দাঁড়িয়েছিলেন।

বিন ফারওয়া নামের ওই আলেমের কয়েকটি টুকরো মন্তব্যকে একটি ভিডিওতে জমা করা হয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভিডিওটি প্রকাশিত হওয়ার পর সমালোচনার ঝড় উঠে।

ভিডিওতে তিনি নারীদের অবাধে পরুষের সঙ্গে মেলামেশা, এমন পোশাক পরিধান করা যাতে শরীর উম্মুক্ত থাকে, নেকাব না পড়া এসব কিছুর জন্য স্বামীদের দায়ী করেন। তবে ওই ভিডিওটি কখন তৈরি করা হয় সে সম্পর্কে বিস্তারিত জানা সম্ভব হয়নি।

বিন ফারওয়াহ আগে থেকেই তার বিতর্কিত মতামতের জন্য পরিচিত ছিলেন এবং এর জন্য তাকে গত বছর কারাগারেও যেতে হয়েছিল।

গত অক্টোবরেও পুলিশ বিন ফারওয়াকে গ্রেফতার করেছিল এবং নাট্যকার নাসির আল-কাসবী ও এমবিসি চ্যানেলকে গালি দেয়ার জন্য দেড় মাসের জেল দিয়েছিল।

২০১৩ সালের মাঝামাঝি সময়ে সৌদি কর্তৃক ‘আমর বিল মা’রুফ নাহি আনিল মুনকার কমিশন’ এর ক্ষমতা হ্রাস করার পর থেক সৌদি আরবে রাস্তাঘাটে মাঝে মাঝে নারী পুরষের একসঙ্গ চলা ও কথোপকথন লক্ষ করা যায়। যা একসময় ছিল না।

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.