Register Now

Login

Lost Password

Lost your password? Please enter your email address. You will receive a link and will create a new password via email.

বিবাহিত মেয়েকে তালাক বা ডিভোর্স ছাড়া অন্যত্রে বিবাহ দেওয়া৷

বিবাহিত মেয়েকে তালাক বা ডিভোর্স ছাড়া অন্যত্রে বিবাহ দেওয়া৷

প্রশ্ন
এক মেয়ের একবার বিয়ে হওয়ার পর স্বামি খারাপ হওয়ার কারনে, মেয়ের পরিবার মেয়েকে স্বামির বাড়ি থেকে নিয়ে এসে দ্বিতীয় বার বিবাহ দেয়, অতঃপর পরিবার জানতে পারলো যে প্রথম স্বামি তালাক না দিলে বা ডিভোর্স না হলে দ্বিতীয় বার বিবাহ দেওয়া যায় না । আর এ বিষয়টি তারা ১বছর পর জানতে পারলো । এখন তাদের করণীয় কী ? জানালে অনেক উপকার হয়৷
উত্তর
কারো বিবাহে থাকা অবস্থায় অন্য কারো সাথে বিবাহ করলে তা শরয়ী দৃষ্টিকোণ থেকে সহীহ হয় না। তাই মেয়েটি স্বামী ছাড়া আন্যজনের সাথে রাত্রি যাপনের কারণে কঠিন গোনাহগার হয়েছে। মেয়েটি আরেকজনের বিবাহে আছে জেনেও যদি পরিবারের
লোকজন দ্বিতীয় বিবাহ দিয়ে থাকে, তাহলে পরিবারের লোকজন ও মারাত্মক গোনাহের কাজ করেছে। এর জন্য সবাইকে তওবা করতে হবে।
প্রশ্নোক্ত ক্ষেত্রে যেহেতু দ্বিতীয় বিবাহই শুদ্ধ হয়নি। তাই দ্রুত দ্বিতীয় স্বামী থেকে স্ত্রীকে আলাদা করতে হবে।
এবং উক্ত মহিলাকে প্রথম স্বামীর কাছেই ফেরত পাঠাতে হবে। তবে নিয়ম অনুযায়ী প্রথম স্বামী থেকে তালাক নেয়ার পর ইদ্দত পালন শেষে অন্য কারো সাথে বা যার সাথে দ্বিতীয়বার পারিবারিকভাবে বিবাহ হয়েছিল তার সাথে বিবাহ দিতে পারবে।
প্রথম স্বামীর কাছে ফেরত যাবার ক্ষেত্রে স্মরণ রাখতে হবে যে, যদি প্রথম স্বামীর সাথে বিবাহ হয়েছে একথা না জেনে দ্বিতীয় স্বামী বিবাহ করে থাকে, তাহলে এক্ষেত্রে দ্বিতীয় বিবাহ হয়নি জানার পর প্রথম স্বামীর কাছে যখন স্ত্রী ফেরত যাবে, তখন প্রথম স্বামীর জন্য বিবাহ করা জরুরী নয়। কিন্তু উক্ত মহিলার ইদ্দত পালন করে প্রথম স্বামীর কাছে যাওয়া জরুরী। ইদ্দত পালনের আগে যাওয়া জায়েজ নয়।
তবে যদি দ্বিতীয় স্বামী জেনে- শুনেই বিবাহ করে থাকে। অর্থাৎ উক্ত মহিলা আরেকজনের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ আছে একথা জেনেই বিবাহ করে থাকে। তাহলে উক্ত মহিলার প্রথম স্বামীর কাছে ফেরত যাওয়ার জন্য ইদ্দত পালনের কোন প্রয়োজন নেই। এমনিতেই ফেরত চলে যাবে। এমতাবস্থায় দ্বিতীয় স্বামীর জন্য মহিলার সাথে সহবাস করা জায়েজ নয়। হারাম হবে।
বাদায়েউস সানায় ২/৫৪৭; রদ্দুল মুহতার ৫/১৫৭; কাযিখান ফিল হিন্দিয়া ১/৩৬৬; ২৮০; খোলাসাতুল ফাতাওয়া ২/১১৮; হিন্দিয়া ১/১৮০৷
মুফতী মেরাজ তাহসীন
01756473393
উত্তর দিয়েছেন : মুফতি মেরাজ তাহসিন

Leave a reply