বিভক্তিকারীরা মুসলিম উম্মাহর দুশমন

আল্লামা ড. মাহমুদুল হাসান আযহারি বলেন ‘ আজ পুরো বিশ্বে যখন মুসলিম উম্মাহ অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে মারমুখী হয়ে উঠছে, মুসলিম মানচিত্র মুছে দিতে তাবৎ তাগুত যখন ঐক্যবদ্ধ হয়ে উঠছে ঠিক তখনি ভ্রাতৃসম্প্রীতির পরিবতে্ আমরা পরস্পর যুদ্ধে লিপ্ত হতে শুরু করেছি।

হাজার বছরের মীমাংসিত বিষয়ে নতুন করে দ্বন্দ্বানল জ্বেলে মুসলিম উম্মাহকে শত বিভক্তিতে নিমজ্জিত করার হীনচেষ্টায় লিপ্ত হচ্ছে একটি জনগোষ্ঠী ( ভ্রান্ত উদ্দেশ্যপ্রণিত আহলে হাদিস) এরা আর যাই হোক উম্মতের শুভাকাঙ্ক্ষী হতে পারে না!

আমি এবং আল্লামা সালমান নদভি ড. জাকের নায়ককে অনুরোধ করেছি আপনি আপনার ডাক্তারি পেশায় মনোযোগী হোন।
আপনার অবদান আমরা অস্বীকার করতে পারি না। ইসলামের ব্যাখ্যা বিশ্লেষণে অনেক মানুষ হেদায়েতের রশ্মিতে আলোকিত হয়েছে এটা অবশ্যই আপনার অনেক বড় খেদমত, তবে ” ফেকহী” ( মাসালা মাসায়েলের বিষয়ে আপনি চিন্তা না করে বিষয়টি ওলামায়ে কেরামের হাতে ছেড়ে দিন! তিনি আমাদের কথা রাখার আশ্বাস দিয়েছেন…

কিছুদিন আগে পিস আমন্ত্রণে আমি আরব সফর করেছিলাম সেখানেও আহলে হাদিসের ওলামাদের আমি বলেছি আর উম্মতকে বিভক্ত করবেন না।
এখন পরস্পরসম্প্রীতির কথা বলুন।
উম্মতের দরদ অনুভব করুন। উম্মত আজ আপনাদের ভুলভ্রান্ত উপস্থাপনায় হয়রান পেরেশান হয়ে দিগ্বিদিক ছুটছে। হৃদয়ের তৃষ্ণা নিবারণে বার বার দিশেহারা হয়ে যাচ্ছে।

পবিত্র মক্কার ইমাম, মহামান্য শায়খ আব্দুর রহমান সুদাইসি বলেন যারা মাযহাব অমান্য করে বা ইমামগণের প্রতি বিদ্বেষবশত তাদের গালমন্দ করে এরা উম্মতে মুহাম্মদির আপন নয় বরং চরম দুশমন..।
হাজার হাজার ইসলামি স্কলারগণ হাজার বছর ধরে যে ইমামগণের প্রতি সশ্রদ্ধ স্বীকৃতি দিয়ে গিয়েছেন এতদ্বিষয়ে নতুন দ্বন্দ্বকারীরা উম্মতের আপন হতে পারে না।

উম্মতকে যারা সম্প্রীতির কথা না বলে দ্বন্দ্বে দ্বন্দ্বে মাতিয়ে রাখে এরা বিশ্বমুসলিম উম্মাহর প্রকাশ্য দুশমন….

আল্লামা ড. মাহমুদুল হাসান আযহারি

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Pin It on Pinterest

Share This