মসজিদের ভেতর টিভি, চ্যানেলযুক্ত মোবাইল দিয়ে ক্রিকেট খেলা দেখা ও…

প্রশ্ন

মসজিদের ভেতর টিভি, চ্যানেলযুক্ত মোবাইল দিয়ে ক্রিকেট খেলা দেখা ও খরব শোনা কি জায়েয বা সওয়াবের কাজ? নাকি জঘণ্যতম অপরাধের কাজ? যদি অপরাধ হয়ে থাকে তবে অপরাধীর করণীয় কী?

খ) যদি কেউ মসজিদের ভেতরে মাল্টিমিডিয়া মোবাইলে খেলা, খবর শোনা বা দেখা জায়েয বলেন তাহলে তার এ কথা কি সঠিক?

উত্তর

মসজিদ আল্লাহ তাআলার ঘর। এটি ইবাদত-বন্দেগী, নামায, কুরআন তিলাওয়াত, যিকির-আযকারের স্থান। খেলাধূলার স্থান নয়। মসজিদের আদাব ও সম্মান রক্ষা করা জরুরি। মসজিদের ভেতরে মোবাইল স্ক্রীনে ক্রিকেট, ফুটবল ইত্যাদি খেলা দেখা গুনাহর কাজ। মোবাইলের স্ক্রীনে খেলা দেখা আর টিভি স্ক্রীনে খেলা দেখার গুনাহ সমান। সর্ম্পূণ নাজায়েয। বর্তমানে টিভি ও মোবাইলে ক্রিকেট বা ফুটবল ইত্যাদি যে খেলা সম্প্রচার করা হয় এতে বহু গুনাহ ও শরীয়তবিরোধী কর্মকা- রয়েছে। মসজিদের বাইরেও কোনো মুসলমানের জন্য এগুলো দেখা বৈধ নয়। আর মসজিদে দেখা তো আরো মারাত্মক গুনাহ। আর মসজিদে টিভি দেখা কতটা জঘন্য কাজ তা তো বলার অপেক্ষা রাখে না।

প্রকাশ থাকে যে, মসজিদ এমন এক পবিত্রতম জায়গা, যেখানে দুনিয়াবী অনেক বৈধ কাজও নিষিদ্ধ হয়ে যায়। যেমন, ব্যবসা-বাণিজ্য, ক্রয়-বিক্রয় ইত্যাদি।

অনুরূপ মসজিদের বাইরে বৈধ দুনিয়াবী গল্প-গুজব ও আলাপচারিতা নাজায়েয নয়। কিন্তু মসজিদের ভেতরে গল্প-গুজবকারীর প্রতি কঠোর ধমকি এসেছে।

তাই যেখানে সাধারণ অবস্থার বৈধ কাজকর্মই নিষিদ্ধ সেখানে ক্রিকেট খেলা দেখা যাতে একাধিক গুনাহর কাজ রয়েছে তা কত বড় অন্যায় ও গুনাহর কাজ হবে তা সহজেই অনুমেয়। তাই কেউ মসজিদে খেলা দেখে থাকলে তার কর্তব্য হল, আল্লাহ তাআলার নিকট খাঁটি মনে তওবা করা এবং ভবিষ্যতে এমন অন্যায় ও গুনাহর কাজ থেকে সম্পূর্ণরূপে বিরত থাকা।

আর কোনো ব্যক্তি যদি বাস্তবেই মোবাইল স্ক্রীনে এ ধরনের খেলা দেখাকে জায়েয বলে থাকেন তবে তার এ বক্তব্য গ্রহণযোগ্য নয়।

উত্তর দিয়েছেন : মাসিক আল-কাওসার

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.