রেজিস্টার

Sign Up to our social questions and Answers Engine to ask questions, answer people’s questions, and connect with other people.

লগিন

Login to our social questions & Answers Engine to ask questions answer people’s questions & connect with other people.

Forgot Password

Lost your password? Please enter your email address. You will receive a link and will create a new password via email.

Please briefly explain why you feel this question should be reported.

Please briefly explain why you feel this answer should be reported.

Please briefly explain why you feel this user should be reported.

মসজিদে দুনিয়াবী কথা বলা

মসজিদে দুনিয়াবী কথা বলা
প্রশ্ন
মসজিদে কি দুনিয়াবী কথা বলা হারাম?
উত্তর
মসজিদ হল, নামায, জিকির, তিলাওয়াত তথা ইবাদতের স্থান। দুনিয়াবী আলাপ আলোচনার স্থান নয়। তাই দুনিয়াবী কথাবার্তার জন্য মসজিদে গমণ বৈধ নয়। কিন্তু যদি মসজিদে ইবাদতের জন্য প্রবেশ করে, তারপর প্রয়োজনীয় দুনিয়াবী কথা বলে, তাহলে সেটি যদি কারো ইবাদতের বিঘ্ন না ঘটায় এবং অশ্লীল না হয়, তাহলে জায়েজ আছে।
‎ﻭَﺍﻟْﻜَﻠَﺎﻡُ ﺍﻟْﻤُﺒَﺎﺡ؛ُ ﻭَﻗَﻴَّﺪَﻩُ ﻓِﻲ ﺍﻟﻈَّﻬِﻴﺮِﻳَّﺔِ ﺑِﺄَﻥْ ﻳَﺠْﻠِﺲَ
‎ﻟِﺄَﺟْﻠِﻪِ
‎ﻭﻗﺎﻝ ﺍﺑﻦ ﻋﺎﺑﺪﻳﻦ ﺍﻟﺸﺎﻣﻰ ﺭﺡ : ‏(ﻗَﻮْﻟُﻪُ ﺑِﺄَﻥْ ﻳَﺠْﻠِﺲَ
‎ﻟِﺄَﺟْﻠِﻪِ ‏) ﻓَﺈِﻧَّﻪُ ﺣِﻴﻨَﺌِﺬٍ ﻟَﺎ ﻳُﺒَﺎﺡُ ﺑِﺎﻟِﺎﺗِّﻔَﺎﻕِ ﻟِﺄَﻥَّ ﺍﻟْﻤَﺴْﺠِﺪَ ﻣَﺎ
‎ﺑُﻨِﻲَ ﻟِﺄُﻣُﻮﺭِ ﺍﻟﺪُّﻧْﻴَﺎ . ﻭَﻓِﻲ ﺻَﻠَﺎﺓِ ﺍﻟْﺠَﻠَّﺎﺑِﻲ : ﺍﻟْﻜَﻠَﺎﻡُ ﺍﻟْﻤُﺒَﺎﺡُ
‎ﻣِﻦْ ﺣَﺪِﻳﺚِ ﺍﻟﺪُّﻧْﻴَﺎ ﻳَﺠُﻮﺯُ ﻓِﻲ ﺍﻟْﻤَﺴَﺎﺟِﺪِ ﻭَﺇِﻥْ ﻛَﺎﻥَ ﺍﻟْﺄَﻭْﻟَﻰ
‎ﺃَﻥْ ﻳَﺸْﺘَﻐِﻞَ ﺑِﺬَﻛَﺮِ ﺍﻟﻠَّﻪِ ﺗَﻌَﺎﻟَﻰ، ‏( ﺭﺩ ﺍﻟﻤﺤﺘﺎﺭ، ﻛﺘﺎﺏ
‎ﺍﻟﺼﻼﺓ، ﺑﺎﺏ ﻣﺎ ﻳﻔﺴﺪ ﺍﻟﺼﻼﺓ ﻭﻣﺎ ﻳﻜﺮﻩ ﻓﻴﻬﺎ، ﻓﺮﻭﻉ
‎ﺍﻓﻀﻞ ﺍﻟﻤﺴﺎﺟﺪ، ﻣﻄﻠﺐ : ﻓﻰ ﺍﻟﻐﺮﺱ ﻓﻰ ‎ﺍﻟﻤﺴﺠﺪ – 2/436 হযরত আনাস রা.থেকে বর্ণিত এক হাদীসে রাসূল সাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেছেন-
‎ﺇِﻥَّ ﻫَﺬِﻩِ ﺍﻟْﻤَﺴَﺎﺟِﺪَ ﻟَﺎ ﺗَﺼْﻠُﺢُ ﻟِﺸَﻲْﺀٍ ﻣِﻦْ ﻫَﺬَﺍ ﺍﻟْﺒَﻮْﻝِ، ﻭَﻟَﺎ
‎ﺍﻟْﻘَﺬَﺭِ ﺇِﻧَّﻤَﺎ ﻫِﻲَ ﻟِﺬِﻛْﺮِ ﺍﻟﻠﻪِ ﻋَﺰَّ ﻭَﺟَﻞَّ، ﻭَﺍﻟﺼَّﻠَﺎﺓِ ﻭَﻗِﺮَﺍﺀَﺓِ
‎ﺍﻟْﻘُﺮْﺁﻥِ অর্থাৎ মসজিদ প্রসাব,নাপাকী ও আবর্জনার উপযুক্ত নয়। বরং মসজিদ হল আল্লাহ তাআলার যিকির ও কুরআন তেলাওয়াতের জন্য। মুসলিম শরীফ হাদীস নং-২৮৫৷ উত্তর প্রদানে মুফতী মেরাজ তাহসীন
01756473393
উত্তর দিয়েছেন : মুফতি মেরাজ তাহসিন

Related Posts