মাওলানা সা’দ ইস্যু; মুফতি মিযানুর রহমান সাঈদের গুরুত্বপূর্ণ ৪ প্রস্তাব

মাওলানা সাদ কান্ধলভিকে কেন্দ্র করে দিনব্যাপী চরম উত্তেজনা বিরাজ করে রাজাধানীতে। সঙ্কট নিরসনে মারকাজুশ শাইখ জাকারিয়া ইসলামিক রিসার্চ সেন্টারের মহা পরিচালক মুফতি মিযানুর রহমান সাঈদ গুরুত্বপূর্ণ ৪ টি পরামর্শ দিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার আওয়ার ইসলামকে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এ পরামর্শ দেন। এগুলো হলো-

১. সরকারকে বাংলাদেশের আলেম-উলামা ও লাখো কোটি ধর্ম প্রিয় মুসলমানের দাবির প্রতি শ্রদ্ধাশীল হয়ে মাওলানা সা’দকে কাকরাইল মসজিদ থেকেই পুলিশ পাহারায় ভারতে ফেরত দেওয়াই হবে সুন্দর সমাধান।

২. সরকারের কর্তব্য এই মুহূর্তে ত্রিপাক্ষিক বৈঠক যথা কাকরাইলের শুরা, উপদেষ্টা ও দেশের শীর্ষ উলামা এর সম্মিলিত এক জরুরি বৈঠকের ব্যবস্থা করে, দেশীয় মুরুব্বিদের মাধ্যমে আসন্ন বিশ্ব ইজতেমাকে সুন্দরভাবে সফল করার যাবতীয় ব্যবস্থা ও প্রদক্ষেপ গ্রহন করা।

৩. যারা যাত্রবাড়ীর ২১ সদস্যের বৈঠকের সিদ্ধান্তকে উপেক্ষা করে মাওলানা সাদকে বাংলাদেশে নিয়ে আসার গোপন পায়তারায় লিপ্ত হয়েছেন তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিয়ে তাবলিগের ঐতিহ্য, সম্মান অক্ষুণ্য রাখা এবং আলেম উলামা ও কাকরাইলে শুরার যৌথ বৈঠকের বিরোধিতাকারী যদি শুরার সদস্য প্রমাণিত হয়, তাহলে তাদের কাকরাইল থেকে স্বসম্মানে অব্যাহতি দিয়ে তাবলিগকে ফিতনা মুক্ত করা।

৪. মাওলানা সাদের প্রতি অনুরোধ, শীর্ষ আলেমদের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে তাবলিগের মুরব্বি হওয়ার স্বপ্ন আপনার মত ব্যক্তির জন্য মোটেই সমিচীন হবে না। কারণ সেই তাবলিগ হযরত ইলিয়াস রহ. এর তাবলিগ হবে না। বরং ইসলাম ধ্বংশের তাবলিগ হবে।

আপনি বাংলাদেশের আলেম সমাজের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ জ্ঞাপন করে স্বসম্মানে আপনার অবস্থানে ফিরে যান। দেওবন্দের সাথে সংকট সমাধাণ করেন। আপনার উস্তাদদের সাথে মতানৈক্য দূর করেন। দাওয়াত ও তাবলীগকে আসলরূপে ফিরিয়ে দেন। তাহলে আগামীতে আপনাকে লাগ গালিচার গণসংবর্ধনা দিয়ে উলামা সমাজ বরণ নিবে, ইনশাআল্লাহ॥

মুফতি মিযানুর রহমান সাঈদ জনগণকে আহ্বান জানিয়ে বলেন, আসুন আমরা সবাই উল্লেখিত প্রস্তাবের প্রতি ঐক্যমত পোষণ করে চলমান সংকট নিরসন করে তাবলিগের মত এই মহান দ্বীনি কাজকে বর্তমান ব্যাধি থেকে পাক পবিত্র করি। আল্লাহ সকল ফিৎনা থেকে দাওয়াত ও তাবলিগকে মুক্ত রাখুন, আমীন॥

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.