রোযা অবস্থায় ফরজ গোসলে গড়গড়া ও নাকের নরম জায়গায় পানি পৌছানো ৷

প্রশ্ন
বরাবর মাননীয় মুফতী মেরাজ তাহসীন সাহেব!
আমি একজন মসজিদের ইমাম৷ গতকাল আমার গোসল ফরজ হওয়ার পর সেহরীর আগে গোসল করতে পারিনি৷ আযানের পর যখন গোসলে যাই রোযা থাকার কারণে নাকের নরম জায়গা পর্যন্ত পানি পৌছাইনি ৷ এবং গড়গড়াও করি নি ৷ আর এভাবে গোসল করে ই নামায পড়াই ৷ জানার বিষয় হল, আমার গোসল কি হয়েছে? গোসল পরবর্তি নামাযগুলোর কি হুকুম? স্বাবিস্তারে জানতে চাই৷
উত্তর
রোযা অবস্থায় ফরজ গোসল করার সময় গড়গড়া ও নাকে নরম জায়গা পর্যন্ত পানি পৌছালে যেহেতু রোযা ভেঙ্গে যাওয়ার আশংকা রয়েছে ৷ তাই এমতাবস্থায় গড়গড়া ও নাকের নরম জায়গায় পানি না পৌছানোই শরীয়তের বিধান ৷ অতএব প্রশ্নোক্ত ক্ষেত্রে আপনি ফরজ গোসলে গড়গড়া ও নাকের নরম জায়গায় পানি না পৌছানোর কারণেও আপনার গোসল হয়ে গেছে ৷ সুতরাং পরবর্তি সকল নামাযও সহিহ হয়েছে ৷
বিঃদ্রঃ কারো সুবহে সাদিকের পুর্বে গোসল ফরজ হলে সুবহে সাদিকের পুর্বেই গোসল করে নেয়া উচিত ৷ এমতাবস্থায় গড়গড়া ও নাকের নরম জায়গায় পানি পৌছিয়ে গোসল করতে হবে ৷ কারণ তখন রোযা ভেঙ্গে যাওয়া আশংকা নেই ৷
-মারাকিল ফালাহ, পৃ: ৩৯; ফাতাওয়ায়ে রহীমীয়া, ৫/১৯৮; মাসায়েলে রোযা, পৃ:১৬১৷
উত্তর প্রদানে মুফতী মেরাজ তাহসীন মুফতীঃ জামিয়া দারুল উলুম দেবগ্রাম ব্রাহ্মণবাড়িয়া ৷

উত্তর দিয়েছেন : মুফতি মেরাজ তাহসিন

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Pin It on Pinterest