লাশ দাফনের পর মৃত ব্যক্তির জন্য দোয়া করলে মৃত ব্যক্তি সাহস পায় ও প্রশ্নোত্তর সহজ হয় ৷

প্রশ্ন
লোক মুখে বলতে শুনা যায়, মৃত ব্যক্তিকে দাফন করার পর কবরের পাশে দাঁড়িয়ে দুআ করলে মৃত ব্যক্তি নিজে সাহস পান এবং ফেরেশতাদের প্রশ্নের উত্তর দেওয়া সহজ হয়। তা কি ঠিক?
উত্তর
প্রশ্নে বর্নিত কথাগুলোর প্রায় কাছাকাছি বক্তব্য নির্ভরযোগ্য হাদীসে পাওয়া যায়। এক বর্ণনায় এসেছে, দাফন শেষে মৃত ব্যক্তির কবরের পাশে কিছু সময় অবস্থান করলে তার একাকিত্বভাব দূর হয়।
আবদুর রহমান ইবনে শুমাছা আলমহরী রাহ. বলেন, আমর ইবনে আস রা. যখন মুমূর্ষ অবস্থায় ছিলেন তখন তার কাছে আমরা উপস্থিত ছিলাম। তিনি আমাদের বললেন, তোমরা যখন আমাকে দাফন করবে আমাকে কবরে রেখে আমার উপর পর্যাপ্ত পরিমাণ মাটি দিবে। এরপর একটি উট জবাই করে তার গোশত বণ্টন করতে যে পরিমাণ সময় লাগে ততটুকু সময় আমার কবরের পাশে অবস্থান করবে। যেন এর দ্বারা আমার একাকিত্বতার ভীতি দূর হয়ে যায় এবং আমি আমার রবের প্রেরিত দূতকে বুঝে-শুনে জবাব দিতে পারি।
সহীহ মুসলিম ১/৭৬, হাদীস : ১২১৷
অন্য হাদীসে এসেছে, মৃত ব্যক্তিকে দাফন করার পর সেখানে তার মাগফিরাত ও দৃঢ়তার সাথে ফেরেশতাদের প্রশ্নের উত্তর দিতে পারে সেজন্য দুআ করা হায়৷
উসমান ইবনে আফফান রা. বলেন, রাসূলে কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কোনো মাইয়্যেতকে দাফন করার পর সেখানে অবস্থান করতেন এবং বলতেন, তোমরা তোমাদের ভাইয়ের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা কর এবং দুআ কর। যেন আল্লাহ তাআলা তাকে দৃঢ়তার সাথে ফেরেশতাদের প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার তাওফীক দান করেন। কেননা সে এখনই জিজ্ঞাসিত হবে।
সুনানে আবু দাউদ ২/৪৫৯, হাদীস : ৩২১৩ বিস্তারিত দেখুনঃ ইলাউস সুনান ৮/৩৪২৷

উত্তর দিয়েছেন : মুফতি মেরাজ তাহসিন

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.