শুনেছি, সূরা তাহরীমের ৮ নং আয়াতে ‘তাওবাতান নাসূহা’-এর نصوح শব্দটি…

প্রশ্ন

শুনেছি, সূরা তাহরীমের ৮ নং আয়াতে ‘তাওবাতান নাসূহা’-এর نصوح শব্দটি নাকি এক ব্যক্তির নাম এবং ‘তাওবাতান নাসূহা’ দ্বারা ঐ ব্যক্তির তাওবার দিকে ইঙ্গিত করা হয়েছে। জানতে চাই, এ কথাটি কি সঠিক? আর উক্ত শব্দের মূল অর্থ কী?

উত্তর

আপনার শোনা কথাটি ঠিক নয়। উক্ত আয়াতে نصوح শব্দটি কোনো ব্যক্তির নাম নয়। বরং এটি তার পূর্বের শব্দ توبة এর বিশেষণ (সিফাত)। শব্দটি نصحথেকে উদগত, যার অর্থ খাঁটি করা এবং এ অনুযায়ী ‘তাওবাতান নাসূহা’- এর অর্থ হল বিশুদ্ধ এবং খাঁটি তওবা।

হযরত নুমান বিন বশির রা. বলেন, আমি হযরত উমর রা.কে বলতে শুনেছি, ‘তাওবাতান নাসূহা’ হল কোনো গুনাহ ভবিষ্যতে না করার দৃঢ় সংকল্প করা এবং এরপর কখনো সে কাজ না করা।

-শুআবুল ঈমান, বায়হাকী, হাদীস : ৭০৩৪; তাফসীরে ইবনে কাসীর ৪/৬১২; তাফসীরে তবারী ১২/১৫৯; মাজমূ ফাতাওয়া ইবনে তাইমিয়া ১৬/৫৭, ৫৯

উত্তর দিয়েছেন : মাসিক আল-কাওসার

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.