১. কয়েকদিন আগে এক মসজিদে জুমার নামায পড়ার সময় নামাযের…

প্রশ্ন

১. কয়েকদিন আগে এক মসজিদে জুমার নামায পড়ার সময় নামাযের আগে ইমাম সাহেব বললেন, কারো টাখনুর নিচে কাপড় থাকলে উঠিয়ে নিন। হুযুরের কাছে জানতে চাই, টাখনুর নিচে কাপড় থাকা অবস্থায় নামায পড়লে কি নামাযের কোনো সমস্যা হয়?

২. কুরআন শরীফের অল্প কয়েকটি সূরা আমার মুখস্ত আছে। তাহাজ্জুদ নামাযে যদি কেরাত লম্বা করার উদ্দেশ্যে একই সূরা এক রাকাতে বারবার পড়ি তাহলে কি কোনো সমস্যা আছে?

উত্তর

১. টাখনুর নিচে কাপড় পরা শরীয়তে নিষিদ্ধ। হাদীস শরীফে এসেছে, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেন,

مَا أَسْفَلَ مِنَ الكَعْبَيْنِ مِنَ الإِزَارِ فَفِي النَّارِ .

টাখনুর নিচের যে অংশ লুঙ্গী (ইত্যাদি) দ্বারা ঢাকা থাকবে তা জাহান্নামে যাবে। (সহীহ বুখারী, হাদীস ৫৭৮৭)

আর নামাযের মধ্যে টাখনুর নিচে কাপড় থাকলে নামায মাকরূহ হবে। আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন,

مَنْ أَسْبَلَ إِزَارَهُ فِي صَلَاتِهِ خُيَلَاءَ فَلَيْسَ مِنَ اللَّهِ فِي حِلٍّ وَلَا حَرَامٍ.

যে ব্যক্তি নামাযে অহঙ্কারবশতঃ নিজ কাপড় (পায়ের গিরার নিচে) ঝুলিয়ে রাখে, আল্লাহ তার জন্য ‘জান্নাত’ হালাল করবেন না এবং ‘জাহান্নামও’ হারাম করবেন না। (সুনানে আবু দাউদ, হাদীস ৬৩৭)

অতএব নামায ও নামাযের বাইরে সর্বাবস্থায় যেন পুরুষের কাপড় টাখনু গিরার উপরে থাকে সে ব্যাপারে যতœবান হওয়া অবশ্য-কর্তব্য। -ইমদাদুল আহকাম ৪/৩৩৬

উত্তর : ২. নফল নামাযে এক রাকাতে কয়েকটি সূরাও পড়া যায়। তাই আপনার যে কয়টি সূরা মুখস্থ আছে সেগুলো দু রাকাতে মিলিয়ে পড়ে নিতে পারেন। এছাড়া নফল নামাযে একই রাকাতে একই সূরা বারবার পড়ারও সুযোগ আছে। তবে ফরয নামাযে ইচ্ছাকৃত এমনটি করা অনুত্তম। -ফাতাওয়া হিন্দিয়া ১/১০৭;হাশিয়াতুত তহতাবী আলাল মারাকী পৃ. ১৯৩

উত্তর দিয়েছেন : মাসিক আল-কাওসার

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Pin It on Pinterest