Anonymous
  • 1

কী কী কারণে কাউকে ধর্ম ব্যবসায়ী বলা যেতে পারে?

  • 1

ধর্ম ব্যবসায়ী সব ধর্মেই আছে। ধর্ম অনুযায়ী এদের বৈশিষ্ট্য ভিন্ন হবে। আমি যেহেতু একজন মুসলিম সেহেতু আমি শুধু ইসলামে যারা ধর্ম ব্যবসায়ী তাদের বৈশিষ্ট্য বলবোঃ

  1. ধর্ম ব্যবসায়ীরা ইসলামের মৌলিক কোনো বিষয়ে ঞ্জান রাখ না।
  2. এরা সাধারণ মুসলমানদের ধোঁকা দিয়ে টাকা পয়সা আদায় করে।
  3. এরা গাঁজা, ইয়াবা,তাড়ি প্রকাশ্যে পান করে। এগুলো নিয়ে ভুল ব্যাখ্যা করে
  4. এরা মহিলাদের বিভিন্ন ভয় – ভীতি দিয়ে ধর্ষন করে।
  5. এরা সবসময় নোংরা পোষাক পরে। ১ মাসেও গোসল করে না।
  6. এরা কোরআন – হাদিসের ভুল ব্যাখ্যা করে। নিজেদের সুবিধামতো ব্যাখ্যা করে।
  7. এরা কোনো আইনের তোয়াক্কা করে না।
  8. এরা জ্বীন- পরী, শয়তানের মিথ্যা ভয় দেখিয়ে টাকা পয়সা ছিনিয়ে নেয়। মহিলাদের বিভিন্নভাবে ধোঁকা দেয়
  9. এরা প্রায় সময়ই অস্ত্রের ব্যবসা করে। মাজারের গোপন ডেরায় অস্ত্র লুকিয়ে রাখে
  10. সাধারণ মানুষকে সহজে বড়লোক বানানোর কথা বলে তাদের নিঃস্ব করে দিচ্ছে
  11. এরা সরকারের কখনও বিরোধিতা করে না।দেশের কোনো সমস্যা নিয়ে এরা মুখ খুলে না।

কুষ্টিয়ার লালন মাজার, গুলিস্তানের গোলাপ শাহ মাজার, মিরপুরে শাহ আলি মাজার,সিলেটের শাহ জালাল মাজার, বাগেরহাটের খান জাহান আলীর মাজার প্রভৃতি। এভাবে হাজার হাজার ধর্ম ব্যবসায়ীদের আস্তানা রয়েছে বাংলাদেশে। এরা সাধারণ মুসলমানদের ধোঁকা দিয়ে মুরগী, গরু,ছাগল, হাস,স্বর্ন,রুপা,জমি, ফ্লাট, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান কেড়ে নিয়ে ভুক্তভোগীকে নিঃস্ব করে দিচ্ছে।

আফসোস আমাদের দেশের এক শ্রেনীর মানুষ আলেম- ওলামা, হুজুরদের ধর্ম ব্যবসায়ী বলে গালি দিচ্ছে। অথচ এরা কখনোই কোনো মুসলমানকে বড়লোক বানানো, বিয়ে চুড়ান্ত, রোগ ভালো, চেয়ারম্যান- মেম্বার বানানো এসব মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দেয়না। এরা খুবই কষ্টে দিনাতিপাত করে। কোনো কোনো হুজুর, আলেম- ওলামা মাসে মাত্র ৩-৪ হাজার টাকা বেতন নেন। হ্যা ভাই আপনার দৃষ্টিতে এরাই ধর্ম ব্যবসায়ী।

আপনিও জানান …

আপনার উত্তর যোগ করুন

উত্তর দিতে লগিন করুন।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.