আমাদের মহল্লার কয়েকজন বৃদ্ধ মুসল্লি মসজিদে এসেই বিভিন্ন ধরনের দুনিয়াবী

প্রশ্ন

আমাদের মহল্লার কয়েকজন বৃদ্ধ মুসল্লি মসজিদে এসেই বিভিন্ন ধরনের দুনিয়াবী কথাবার্তা ও গল্প-গুজবে লিপ্ত হয়ে যান। তাদের এ কাজ আমার কাছে খুব খারাপ লাগে। মসজিদে দুনিয়াবী কথা বলার বিধান কী? জানালে কৃতজ্ঞ হব।

উত্তর

নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, নিশ্চয়ই মসজিদ নামায ও আল্লাহ তাআলার যিকিরের জন্যই প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। (মুসনাদে আহমদ, হাদীস : ১০৫৩৩)

মসজিদে গিয়ে গল্প-গুজব ও অনর্থক কথাবার্তায় লিপ্ত হওয়া মসজিদের উদ্দেশ্য ও আদাব পরিপন্থী। তাই এ থেকে বিরত থাকা আবশ্যক। অবশ্য দ্বীনী কাজের জন্য মসজিদে যাওয়ার পর প্রসঙ্গক্রমে প্রয়োজনীয় দুনিয়াবী কথাবার্তা বলা নাজায়েয নয়। এক্ষেত্রে মসজিদের আদব ও সম্মানের প্রতি সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে। উচ্চস্বরে বলবে না এবং অন্যের ইবাদতে বিঘ্ন না ঘটে সে দিকেও লক্ষ্য রাখবে।

-রদ্দুল মুহতার ১/৬৬২; ফাতাওয়া হিন্দিয়া ৫/৩২১; আলবাহরুর রায়েক ২/৩৬; ফাতহুল কাদীর ১/৩৬৯

উত্তর দিয়েছেন : মাসিক আল-কাওসার